করোনার প্রভাবে পর্যটক শূন্য কক্সবাজার

১১৯

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজারে এখন চলছে পর্যটনের ভরা মৌসুম। করোনা প্রতিরোধে আবাসিক প্রতিষ্ঠান সমুহের পক্ষে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হলেও, করোনা ভাইরাসের প্রভাবে আশানুরূপ পর্যটক আসছে না এখন। তবে এই অবস্থা বিরাজ করলে ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্থ হবে বলে মনে করছেন পর্যটন সংশ্লিষ্টরা।

কক্সবাজার হোটেল মোটেল জোন। যেখানে রয়েছে চার শতাধিক হোটেল মোটেল গেস্ট হাউস রিসোর্ট ও কটেজ। তারমধ্যে অভিজাত হোটেল রয়েছে ৩০টির বেশি। এখন করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষায় এসব অভিজাত হোটেলে প্রবেশের সময় প্রত্যেক পর্যটককে স্যানিটাইজারে হাত পরিষ্কার-সহ নেয়া হয়েছে নানা সতর্কতা।

এদিকে এখন পর্যটনের ভরা মৌসুম। অন্যান্য বছর এই সময়ে পর্যটকে ভরা থাকলেও, এবারের চিত্র ভিন্ন। করোনা ভাইরাসের প্রভাবে কক্সবাজারে আসা কমিয়ে দিয়েছেন পর্যটকরা। আবার অনেকেই বাতিল করেছেন হোটেলের অগ্রিম বুকিং। 

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) বিকেলে সৈকতে গিয়ে দেখা যায়, সৈকতের লাবণী, সুগন্ধা, কলাতলী পয়েন্টে স্বল্প সংখ্যক পর্যটক দেখা গেলেও সী-গাল, শৈবাল, মাদ্রাসা ও ডায়াবেটিস পয়েন্টে পর্যটন শূন্য। সৈকতের বালিয়াড়িতে খালি পড়ে আছে কিটকটগুলো। হকার ও ফটোগ্রাফাররা বেকার সময় পার করছেন।

সী-গাল পয়েন্টের কিটকট ব্যবসায়ী সুমন মুখ্যার্জী বলেন, চলতি মাস থেকে সৈকতে পর্যটক আসা কমে গেছে। যেখানে এই পয়েন্টে ২০টি কিটকট (ছাতা) এ পর্যটকদের বসার জন্য জায়গা দিতে পারতাম না। এখন এই কিটকটগুলো খালি পড়ে আছে; ব্যবসাও হচ্ছে না।

পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, বছরের মধ্য নভেম্বর থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত কক্সবাজারে ভরা পর্যটন মৌসুম। এ সময়ে পর্যটকদের আনাগোনায় মুখরিত থাকে সমুদ্র সৈকতসহ কক্সবাজারের বিভিন্ন পর্যটন কেন্দ্রগুলো। প্রতিদিনই বেড়াতে আসে অন্তত ৫০ হাজারেরও বেশী পর্যটক। কিন্তু গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথমবারের মত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়া রোগী শনাক্তের পর থেকে ভর মৌসুমেও কক্সবাজারে বেড়াতে আসা পর্যটকের ঢলে ভাটা পড়েছে।


করোনার প্রভাবে কক্সবাজারে এখন হোটেল কক্ষের বুকিং অনেকখানি কমেছে বলে মন্তব্য তারকামানের হোটেল ওশ্যান প্যারাডাইজের ব্যবস্থাপক (অর্থ) জাহাঙ্গীর আলম হেলাল।

জাহাঙ্গীর বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে হোটেল কক্ষের বুকিং এখন তুলনামূলক অনেকখানি কমে গেছে। পর্যটন মৌসুমের এ সময়ে গত বছরগুলোর চেয়ে কক্সবাজারে এ বছর পর্যটকের আনাগোনা কম রয়েছে। এতে আশানুরূপ ব্যবসার ক্ষেত্রে মন্দার প্রভাব পড়েছে।

ইতিমধ্যে বেড়াতে আসতে ইচ্ছুক অনেক পর্যটক হোটেল কক্ষের অগ্রিম বুকিং বাতিল করেছেন বলে জানান হোটেলের এ ব্যবস্থাপক।

এদিকে কক্সবাজারে বেড়াতে আসতে ইচ্ছুক পর্যটকরা হোটেল কক্ষ বুকিং দেয়ার আগে সংশ্লিষ্টদের কাছ থেকে করোনা ভাইরাসের কারণে এখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে কিনা তা জেনে নেয়ার চেষ্টা করছে বলে তথ্য জানান হোটেল বিচ ওয়ে এর নির্বাহী ( সেলস্ ও মার্কেটিং ) সুখেন্দু বড়ুয়া।

সুখেন্দু বলেন, হোটেল কক্ষ বুকিং নিতে ইচ্ছুক পর্যটকসহ কক্সবাজারের পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়িক খাতে কম-বেশী এখন আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে দাঁড়িয়েছে করোনা ভাইরাসের প্রভাব নিয়ে। বিদেশিদের আনাগোনার পাশাপাশি প্রতিদিনই বিপুল সংখ্যক পর্যটক বেড়াতে আসার কারণে মানুষের মাঝে কিছুটা হলেও ভীতির সঞ্চার হয়েছে। এর প্রভাব পড়েছে হোটেল-মোটেলসহ পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়িক খাতের উপর।

তবে হোটেল-মোটেলসহ পর্যটন সংশ্লিষ্ট ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে জীবানুমুক্ত পরিবেশের ব্যবস্থা রয়েছে জানিয়ে এ হোটেল কর্মকর্তা বলেন, জীবনঘাতী ভাইরাস বহনকারী ব্যক্তি ছাড়া যে কেউ কক্সবাজারে বেড়াতে আসার মত নিরাপত্তামূলক পরিবেশ বিরাজমান রয়েছে।

করোনা নিয়ে আতংকিত হওয়ার মত কোন ধরণের পরিস্থিতি কক্সবাজারে নেই এবং পর্যাপ্ত প্রতিরোধমূলক নিরাপত্তার ব্যবস্থা রয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।

কামাল হোসেন বলেন, গণমাধ্যমের কল্যাণে বেড়াতে আসা পর্যটকসহ সাধারণ মানুষ করোনার জীবনঘাতী প্রভাব সম্পর্কে খুবই সচেতন রয়েছে। তারপরও পর্যটকরা যেন বড় ধরনের জনসমাগম স্থল বা প্রচুর মানুষের ভীড় থাকা জায়গা পরিহার করে ঘোরাফেরা করে।

করোনা সম্পর্কে পর্যটকরা যাতে সচেতনতা অবলম্বন করে চলাফেরা করে এ ব্যাপারে হোটেল-মোটেল কর্তৃপক্ষসহ পর্যটন শিল্প সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

উত্তর দিন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না.

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More

Privacy & Cookies Policy
শীর্ষ সংবাদ
লকডাউনে বিপর্যস্ত দেশের নিম্ন শ্রেণির মানুষেরা।রাজধানীর সড়কে আজ বেড়েছে যানবাহনের সংখ্যা।বরগুনার উপজেলার ২০২১ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নব – নির্বাচিত সকল চেয়ারম্যানদেরকে শপথ পাঠলকডাউনে দ্বিতীয় দিনের সেনাবাহিনীর কার্যক্রম।দেশে করোনায় একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যুর নতুন রেকর্ডকঠোর লকডাউন, বন্ধ সরকারি ও বেসরকারি সব অফিস। Liveমন্ত্রিপরিষদের প্রথম সদস্য হিসেবে করোনা টিকা নিলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আদমেদ পলক।23-01-2020 News Flashtoday news flash১ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার নাইকো মামলার অভিযোগ শুনানিউইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের ওয়ানডে স্কোয়াডে ৩ নতুন মুখপৌর নির্বাচনেও ভোট কেন্দ্র ক্ষমতাসীনদের দখলে : খন্দকার মোশাররফরোববার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিতরণ করবেন প্রধানমন্ত্রীকরোনায় আরো ২১ জনের মৃত্যু,নতুন শনাক্ত ৫৭৮